চাচাতো বোনের সাথে বিয়ে। পর্ব -০৫

কিন্তু সমস্যা হচ্ছে মার সাথে খালামণির সম্পর্ক একেবারেই খারাপ। কেউ কারো নাম শুনতেই পারে না। আমি দুই বোনের শত্রুতা সিনেমাতে দেখেছি, কিন্তু বাস্তব জীবনেও যে এমন কঠিন শত্রুতা হয় তা জানা ছিল না।. সত্যি বলতে আমার এখন খুব কাঁদতে ইচ্ছা করছে। কিন্তু আফিফার সামনে কাঁদতে পারছি না। আমি কাঁদলে আফিফা Continue Reading →

চাচাতো বোনের সাথে বিয়ে। পর্ব -০৪

তুমি তো ভালো করেই জানো তোমাদের সাথে আমাদের সম্পর্ক ভালো না। আমি হাজার বললেও মা-বাবা তোমাকে বাড়ির বউ বলে মেনে নিবে না। (মন খারাপ করে). এখন না মেনে নিলেও পরে ঠিকই মেনে নিতো। আর তুমি মন খারাপ করছো কেন.? তোমার তো এখন খুশি হওয়ার কথা।. মানে.? খুশি হবো কেন.? (ভ্রু-কুঁচকে) Continue Reading →

চাচাতো বোনের সাথে বিয়ে। পর্ব -০৩

ভালবাসতে হবে না আমাকে। বিয়ে করেছো, যাও নিজের বউকে গিয়ে ভালোবাস। তাকে প্রাণভরে আদর করো গিয়ে। আফিফার কথায় কষ্ট পেলাম খুব। এমন কঠিন কথা কীভাবে বললো সে.? যাকে নিয়ে আমার এতো স্বপ্ন তাকে ছেড়ে অন্য একটা মেয়ের সাথে স্বপ্ন সাঁজাবো কীভাবে.? কীভাবে স্বপ্ন কে বাস্তবে রূপ দিবো আমি.? স্বপ্ন ভাঙার Continue Reading →

চাচাতো বোনের সাথে বিয়ে। পর্ব -০২

আমি আফিফার কাছে দু’কদম এগিয়ে গেলাম। কাধে হাত দিয়ে আফিফা কে আমার পানে  ফিরাতে চাইলাম কিন্তু ব্যর্থ হলাম। আফিফা ঝাটকা দিয়ে আমার হাত সরিয়ে দিলো। তারপর রক্ত হিম করা চোখে আমার দিকে তাকালো। চোখের ইশারায় বুঝিয়ে ছিল ফের এমনটা করলে পরিণাম ভয়াবহ হবে.! . আমি চুপ থাকলাম কিছুক্ষণ। আফিফা এখনো Continue Reading →

চাচাতো বোনের সাথে বিয়ে। পর্ব -০১

হুশ হওয়ার পর থেকে যাকে এতদিন বোনের নজরে দেখে এসেছি- সেই চাচাতো বোনকে আজ বিয়ে করেছি আমি। স্বপ্নেও ভাবিনি আমার জীবনে এমন একটা ভয়াবহ দিন আসবে। কবুল বলার সময় কষ্টে আমার বুকটা ফেটে যাচ্ছিলো। আমার চাচাতো বোন রিমিকে বিয়ে করে যতটা না কষ্ট পেয়েছি তার চেয়ে হাজারগুণ বেশি কষ্ট পেয়েছি Continue Reading →

গল্পঃ পাত্রী দেখা । পর্ব -০২

একটা ভালো মেয়ের সন্ধান পেয়েছি ইশ্ মা একটা মেয়ে দেখে তোমার শিক্ষা না হলেও আমার শিক্ষা হয়ে গেছে আমি আর কোন মেয়ে দেখতে যেতে পারবো না। চুপ বেয়াদব আমার মুখের উপর কথা বলিস তোর এত বড় সাহস। এক থাপ্পর দিয়ে সব দাঁত ফেলে দেবো বেয়াদব কোথাকার। পাশে থেকে মনি বলে Continue Reading →

যেদিন তুমি এসেছিলে | পর্ব -১৬

কেয়া বাড়ি ফেরার পর থেকে গম্ভীর হয়ে আছে। কারও সাথে কোনো কথা বলছে না। আহনাফের সাথে কেয়ার বিয়ে ঠিক হয়েছে খবরটা শুনে অর্ষা খুবই খুশি হয়েছে। কিন্তু কেয়ার অভিপ্রায় কিছুই বুঝে উঠতে পারছে না সে। এমতাবস্থায় কিছু যে জিজ্ঞেস করবে সেটাও তার সাহসে কুলাচ্ছে না। সকাল আনুমানিক দশটা বাজে। রুহুল Continue Reading →

যেদিন তুমি এসেছিলে | পর্ব -১৫

আহনাফের কথা শুনে বজ্রাহত হলেন আমেনা বেগম। আহনাফ যে কাউকে পছন্দ করতে পারে এটাই তো সে কখনো ভাবতে পারেনি। এখন শুনছে তার বড়ো ছেলে কেয়াকে পছন্দ করে! কেয়া মেয়েটা ভালো। কিন্তু ও’কে আহনাফ কতদিনই বা চেনে যে বিয়ে করার কথাও ভেবে ফেলেছে। বিস্ময় চাপা দিয়ে তিনি ছেলেকে সুধালেন,’ভেবে বলছিস?’ ‘বিয়ের Continue Reading →

যেদিন তুমি এসেছিলে | পর্ব -১৪

গ্যাঞ্জাম পার্টি এই প্রথম উপলব্ধি করল এই গ্যাং-এর কোনো একটি সদস্য ব্যতীত কতটা প্রাণহীন এই গ্যাঞ্জাম পার্টি। অর্ষার বাড়িতে গিয়ে অর্ষাকে পাওয়া যায়নি। কুসুম কাঠ কাঠ গলায় বলে দিয়েছিল, অর্ষার চাকরী হয়েছে। ওরা যেন আবার সেখানে গিয়ে কোনো তুলকালাম কাণ্ড না বাঁধায়। নিহাল এবং সুবাস না থাকলে গ্যাঞ্জাম পার্টির একজনও Continue Reading →

যেদিন তুমি এসেছিলে | পর্ব -১৩

গুমোট অন্ধকার আকাশ। সারি সারি কালো মেঘের ছড়াছড়িতে নীল-শুভ্র আকাশের সৌন্দর্য ম্লান হয়ে গেছে। ভারী বর্ষণের প্রস্তুতি বোঝা যাচ্ছে। পরীক্ষা শেষ হওয়ায় একদিকে যেমন আনন্দ হচ্ছে অন্যদিকে কেমন যেন একটু কষ্টও লাগছে। কলেজ লাইফটাকে ভীষণ মিস করবে অর্ষা। মিস করবে তার প্রিয় গ্যাঞ্জাম পার্টিকে। ভার্সিটিতে কি সবাই একসাথেই পড়তে পারবে? Continue Reading →

যেদিন তুমি এসেছিলে | পর্ব -১২

ঘুনে পোঁকার অত্যাচার দেখেনি এমন মানুষ বোধ হয় বিরল। আবার নাও হতে পারে! কাঠের ওপর সে কি নিদারুণ অত্যাচার তার! আহনাফেরও এই মুহূর্তে মনে হচ্ছে একটা অদৃশ্য ঘুনে পোঁকা একটু একটু করে তার মস্তিষ্ক কুটকুট করে কাটছে। কাকে সে মিস করছে সেটা সে জানে না। এটা নিয়ে অবশ্য তার কোনো Continue Reading →

অনুভবে ভালোবাসি

কানে হেডফোন লাগিয়ে গান শুনছিলাম,, এমন সময় ছোটো বোন এসে বললো আপু আজকে তোকে দেখতে আসবে, ওর কথা শুনে হেডফোন রেখে দৌড়ে আম্মুর কাছে গেলাম। আম্মু আম্মুউউউ কি রে চিল্লাস কেনো(আম্মু) সত্যি কি আমাকে দেখতে আসবে হুম, তোর বাবা বলেছে ছেলে ভালো, তোকে নাকি আগেও দেখেছে, আজকে ওর বাবা মা Continue Reading →

ফুফাতো বোনের ভালোবাসা । পর্ব – ০৮

এইভাবে কেটে গেল কয়েকটি দিন,,, আমার আর মায়ার সম্পর্ক ঠিক আগের মতই আছে,,, তবে পাগলিটাকে খুব ভালোবাসি,,,,, আর পাগল টাও পাগলি কে খুব ভালোবাসে,, কাল আমার আবার কলেজ খোলা,, তাই আমি আমার কাপড় গুলা ঠিক করতে লাগলাম,,, এমন সময় মায়া রুমে আসল,,, আমিঃ- কিছু বলবে?? মায়াঃ- কাল মা আসবে এইখানে??? Continue Reading →

জুনিয়র বর । পর্ব – ০২

এরপর অভি আমাকে বললো সত্যি করে বলো তুমি কি ভাইয়াকে পছন্দ করতে,,? — আজব তো, এসব কথা এখন কেনো হচ্ছে — হু এখনি। হ্যাঁ নাকি না,,তাড়াতাড়ি বলো। আমার জবাব চাই। — অভির এমন কথায় মেজাজ খারাপ হয়ে গেলো। এ জন্যই জুনিয়র ছেলেকে বিয়ে করতে নেই। এরা এক কলম বেশি বোঝে। Continue Reading →

বৌ এর ভালোবাসা । পর্ব -০১

আমি:- বাবা আমি এই বিয়ে করতে পারবো না । বাবা:- আমি না শব্দ টা শুনতে চাইনা । আমি শুধু জানি তুই বিয়ে করছিস এবং আজি। যদি না করিস তাহলে আমি আর তর মা এ বাড়ি থেকে চলে যাব চিরদিনের জন্য । আমি :- বাবা আমার কথাটা শুন। আমার কথা না Continue Reading →

বৌ এর ভালোবাসা । পর্ব -০২

ভোর রাতে কিছুর শব্দে ঘুম ভেঙ্গে গেলো । তাকিয়ে দেখি মৌ কোরআন শরীফ পড়ছে ।আমি মুগ্ধ নয়নে তাকিয়ে রইলাম । তাঁর পর আবার ঘুমিয়ে পড়ি ।হয় তো মৌ দেখতে পারে নাই, নয়তো দেখছে । সকালে ঘুম থেকে মৌ কে বিছানায় পেলাম না । মেয়ে টা গেল কই। তখন দেখি মৌ Continue Reading →

বৌ এর ভালোবাসা । পর্ব -০৩

বাসার ভেতরে গিয়ে তো আমি অবাক, কারণ আমি যাওয়া মাত্রই আমার শ্যালিকারা ঘিরে ধরল । একটা আর দুইটা নয় পুরো এক হালি । (অবশ্য এগুলো আমার শ্বাশুরির না।মৌ এর কাজিন হয়) তো আমি বসে পড়লাম আড্ডা দিতে । ওদের সাথে যখন আড্ডা দিচ্ছিলাম তখন খেয়াল করে দেখলাম মৌ আমার দিকে Continue Reading →

বৌ এর ভালোবাসা । পর্ব -০৪

দেখি দিনা একটা ছেলের সাথে হাত ধরে কফি শপে ঢুকল । ছেলেটাকে পরিচিত লাগছে । কে হতে পারে ছেলে টা । অহ্ হে মনে পরেছে সেই দিনের ছেলে টা দিনা বলছিল ওর কাজিন হয় । তখনি আমি দিনা কে কল দিলাম , দিনা কল ধরে বললো। দিনা:- হ্যালো Arean আমি Continue Reading →

বৌ এর ভালোবাসা । পর্ব -০৫

আইডিয়া, প্রোপজ করবো । হে বৌ কে প্রোপজ করবো, বৌ এর ভালোবাসা পাওয়ার জন্য প্রোপজ করবো । আগামী মাসে মৌ র জন্ম দিন। ঐ দিনই আমি আমার বৌ কে প্রোপজ করবো । এসব ভাবতে ভাবতে ঘুমিয়ে পড়ি। ঘুম থেকে উঠে যা দেখলাম তাতে আমি অবাক হয়ে গেলাম। মৌ এর কান্ড Continue Reading →

বৌ এর ভালোবাসা । পর্ব -০৬

অফিসে এসে পড়লাম আরেক বিপদে । ওদের কান্ড দেখে আমার মাটির নিচে ঢুকে যেতে ইচ্ছে করছিল । গিয়ে দেখি অফিসের কলিগরা সবাই আমাকে স্বাগত জানানোর জন্য দাড়িয়ে আছে ।কেউ কেউ ফুলের তোড়া, আবার কেউ মালা হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে । আমি তাদের কাছে যেতেই আমার কলিগ+কলেজের বেস্ট ফ্রেন্ড দিশা এসে Continue Reading →