অন্তত অন্যের জন্য নিজেকে বদলাতে হয় নি

ঐ যে কালো পাঞ্জাবিটা তোর, সেটাতে ভালোই তো মানাতো। তবে আজ হলুদ এ কেন নিজেকে রাঙালি নতুন মানুষটা কি তোর এতটাই প্রিয়? আমি যদি একটু বৃষ্টি তে ভিজতে চাইতাম,তখন আমাকে শাঁশাতি, বকা দিয়ে বলতি,ভালো না এতো পাগলামি। তবে আজ কেন বৃষ্টি তোকে ছোঁয়ার সাহস পায়? তোর খোঁজ নেওয়া আমার প্রিয় Continue Reading →

গ্রামের নারী

রঙটা নাহয় একটু গাঢ়,চোখদুটো নাহয় ডাগর ডাগর, হাসিটা নাহয় বাঁকাভাবেই মানায়, তাদের কি ভালোবাসতে হয় না বুঝি? গ্রামের রাস্তায় নাহয় হেলেদুলে হাটিঁ, কলসির ভাড়েঁ একটু ঝুঁকে পরি, ঘুরি ওড়ানোর মাঝে আনন্দ খুঁজে মরি, তাদের ভালোবাসার মানুষ হয় না বুঝি? লাল শাড়ি,লাল টিপ আর আলতায় বেশ আছিশহরের ছাইপাঁশ, মডেলিং না জানি,উঁচু Continue Reading →

ভালোবাসা পেতে হলে ভালো বন্ধু হতে হয়

আচ্ছা তুই কি আমার গল্প করার সঙ্গী হবি? নাকি আমার আজগুবি গল্প শুনে ভয়ে পালাবি। তুই কি বর্ষাকালে ব্যাঙের ডাক শোনার সঙ্গী হবি? নাকি বিরক্ত হয়ে কানে ইয়ার ফোন গুঁযে দিবি। তুই কি আমার নদীর পাড়ে বসে ঢিল ছোড়ার সঙ্গী হবি? নাকি মাছ ধরার নেশায় ছিপ নিয়ে বসে যাবি। তুই Continue Reading →

তুমি তো আস্ত মানুষ একটা

সামান্য একটা টিপ পড়ার পরও সেটা আবার যত্ন করে রাখি, তুমি তো গোঁটা একটা মানুষ, আর তুমি বলো,তোমার যত্ন নিতে পারবো না?? আলমারিতে সব কাপড়্গুলো সুন্দর করে গুছিয়ে রাখি, আর তুমি বলো,তোমার জীবন গুছাতে পারবো না?? কোন তরকারিতে কি লাগবে সেটা আগে থেকেই বুঝে যাই, আর তুমি বল,তোমার মন বুঝতে Continue Reading →

বাস্তবতা বড়ই কঠিন

তোমাকে আটকে রাখা সে আর কি, ঝড়ের প্রবল বেগে নিজেকে স্তব্ধ রাখা তার চেয়েও কঠিন। বাস্তবতা বড়ই কঠিন।তোমার সাথে সাক্ষাতের আনন্দ সে আর কি, অনেক সময় পর প্রিয় মানুষকে দেখেও কথা না বলতে পারার বেদনা আরও কঠিন। তোমার কাছ থেকে কয়েক মাইল দূরে থাকা সে এমন কি, গন্তব্যে পৌছাঁতে পারবে Continue Reading →

আমার মাঝে তুমি আর তোমার মাঝে অন্যকেও

তোমার রাত্রি যায় ঘুমের শহরের পরীদের সাথে আড্ডা দিয়ে, আর আমি নির্ঘুম রাত্রি যাপন করি। তাল মিলিয়ে সুখভরা কন্ঠে গান গাও তুমি, আর বুক ভরা কষ্টে অগণিত স্বপ্ন বুনি আমি। বেদনার রং তোমায় ছুঁতে ভয় পায়, আর আমাতে বসবাস তাদের।। তোমার ভেতর সুরেদের গুঞ্জন, আমার ভেতর আত্মচিৎকার কাদের? নতুন ভোরে Continue Reading →

ছোট গল্প

নিঃশ্চুপ,নির্ঘুমে ভেঙে যাওয়ার শব্দ কি শোনো? ঝাপঁসা চশমা দিয়ে লুকানো কষ্টগুলো কি দেখো? আমার আত্মচিৎকারে কখনো কি কেঁপে ওঠো? ছানি পড়া মনে আমার কথা একবারও কি ভাবো? অস্পষ্ট ভাষায় তোমার মুখে একবারও কি আমার নাম আসে? তুমি কি কুঁকড়ে থাকো,আমি বিলীন হওয়ার ভয়ে? অজস্র মানুষের ভীড়ে আমাকে কখনো খোঁজো? তোমার Continue Reading →

ভুলতে বসেছি রে

ভুলতে বসেছি রে,, সেই চেনা পথে কাটানো ক্ষানিক সময়ের সুন্দর মুহুর্তগুলো। বিকেল বেলা কত্ত কত্ত খেলার আসর হতো।। আর ঐ যে জোনাকি পোকা হাতে নিয়ে নিজেকে সবচেয়ে সুখী মনে করা, সাইকেল চালাতে পড়ে গিয়ে পথিমধ্যেই কেঁদে দেওয়া। ঐ যে আগের বাসাটা,সেখানের পরিচিত মুখগুলো আজ দেখলে বিরক্তির ভাব আসে, সমালোচনা করতে Continue Reading →

বিষাদের শহর

আমি আর ফিরতে চাই না তোমাদের ভীড়ে, সেই শহর যেখানে মিথ্যে পচা গন্ধে ভেতর আত্মা কুকড়ে ওঠে। যেখানে প্রতিনিয়ত বিশ্বাসের দড় কমে যাচ্ছে দিন দিন। বেড়ে যাচ্ছে অহমিকার অলি গলি। বৃদ্ধি পাচ্ছে নতুন নতুন প্রেম নামক পিশাচময়ী খেলা। গড়ে উঠেছে দাম্ভিকতার দেয়াল। অভিমান আর দুরত্বের কুয়াশায় ঢেকেছে তোমাদের শহর। তোমাদের Continue Reading →

অভিশপ্ত হাসি

আমার হাসিতে মুগ্ধতা পাওয়া তো বিরল কিছু নয়, তবে আমি চাই তুমি আমার হাসিতে বিষন্ন হয়ে পড়। আমার হাসির ভাজে তোমার আর্তনাদ দেখতে চাই। চাই আমার হাসির শব্দ তোমার অনিদ্রার কারণ হোক। আমার হাসিতে যেনো তোমার মন আমাকে হারানোর আকুলতা প্রকাশ করে। আমার হাসিতে মুগ্ধ তো সবাই হয়, কিন্তু আমি Continue Reading →

তোমার ইচ্ছেয় সাজানো আমি

তুমি বলেছিলে আমার কানের অই রুপালি ঝুমকোটা তোমার খুব প্রিয়, তাই মরিচিকা ধরা সেই ঝুমকো আজও আমার ড্রয়ারে সাজানো। তুমি বলেছিলে আমার গালের টোলে যেনো আর কারো নজর না লাগে, তাই আজ আমি হয়েছি মুখোশধারী। তুমি বলেছিলে আমায় নীল শাড়িতে খুব মানায়, তাই আজ আমার আলমারি ভরা নীল শাড়ি। তুমি Continue Reading →

অদ্ভুতুরে আমরা

যখন যাকে চাই তাকে না পাই তাতে বড্ড বিরহ আমাদের, আর যখন যাকে চাই তাকে পেয়ে যাই তখন অন্যকোনো অস্তিত্ব খুঁজে পাই নিজেদের। অদ্ভুত প্রাণী আমরা, নিজেরা কি চাই সেটা নিজেরাই জানি না। অন্যতে হয়ে যাই মগ্ন,পানি ছাড়াই আমরা ডুবন্ত। অদ্ভুত আমরা, বড়ই অদ্ভুত, খুঁজি নিজের স্বার্থ, আর যে যেভাবে Continue Reading →

অধিকারহীন তুমি

তোমাকে ভালোবাসার অধিকার না, শুধু তোমাকে আমার পাশে চাই। হাত ধরে অঙ্গীকার না,চাই তোমার হাতের আঙুল ধরে চিমটি কাটার অধিকার। নিজ নিজ জীবনে ব্যস্ত তো সবাই, তবুও সেই ব্যাস্ত সময়ের একটু তোমার একান্ত ব্যস্ততা হতে চাই। রাতের গভীরে আমাকে হারানোর চিন্তার কারণ না,সারাজীবন, সব সময় পাশে ছায়া হয়ে থাকতে চাই। Continue Reading →

ফুল বিক্রি করি ফুল

রজনী গন্ধা গোলাপ বেলিফুল কিনবেন একটা ভাই । সাহায্য চাইনা ভিক্ষাও নয়ফুল বিক্রি করে জীবন চালাই । শিক্ষা নেইতো চিকিৎসাও নেইদুই বেলা অন্য মুখে নিতে । রুদ্রতে পুড়ে বৃষ্টিতেও ভিজেফুল বিক্রি করি রোজ পথে । অবহেলা আর লাঞ্চনা সয়েকাটে দিন কাটে প্রহর । মা বাবা হীন অজম্ম মনে হয়তবুও আপন Continue Reading →

আহ্বান

কিসের ভয়ের জন্যে, মোরা বসে আছি হায়! ধনুক থেকে যে তীর, বেরিয়ে পড়েছে ভাই। কোথায় সেই আবু বকর, ওমর আর ওসমান! আলী খালিদ তোমাদের তরে, জাতি যে অপেক্ষমাণ। জিহাদের ডাক চলে এসেছে, মোদের মাঠে-ময়দানে. দেরি কিসের আর চলো গারদাশ শামিল হই রণাঙ্গনে। দুলদুল হবে বাহন মোদের, জুলফিকার হবে হাতিয়ার! রাসূলের Continue Reading →

জেগেছে বিশ্বের মুসলিম

আগুন জ্বালো বিশ্বের মুসলমান এক হও সবাই জিহাদ করো । ফ্রান্সের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াও এখনই সময় হাতে হাত ধরো । কটুক্তিকর মন্তব্য ব্যঙ্গচিত্র করে পার পাবেনা যতই থাকুক ক্ষমতা । মুনাফিক ধ্বংস হবে নিপাত জাবে জেগেছে বিশ্বের তাওহিদ জনতা । হযরত মোঃ (সাঃ) এর অপমান সহ্য করবেনা বিশ্বের নবীন সেনা Continue Reading →

কে এই ভিকারুন নেসা নুন!!

ভিকারুণ নিসা নুন স্কুল এন্ড কলেজ চিনিনা…. এমন কেউ নেই…. কিন্তু এই ভিকারুণ নিসা নুন কে ছিলেন… কেমন ছিলেন তা অনেকেই জানিনা…. ভিকারুণ নিসা নুন ছিলেন ফিরোজ খান নুনের স্ত্রী.. ফিরোজ খান নুন ছিলেন ১৯৫৭-৫৮ এর সময় পাকিস্তানের সপ্তম প্রধানমন্ত্রী…. এর আগে তিনি ১৯৫০ থেকে ১৯৫৩ বছর পর্যন্ত পূর্ব বাংলার Continue Reading →

তুমি নেই

তুমি জিজ্ঞেস করেছিলে কতো বর্ষ অপেক্ষা করতে পারবো তোমার, আমি হেসে উড়িয়ে দিয়েছিলাম। আজ দেখো! সেই তোমার নব্বই দশকের প্রেমিকা সেজে বসে আছি, আর অপেক্ষায় প্রহর গুনছি। বলতে না,! সেকেলে মেয়ে তোমার বড্ড ভালোলাগে,দেখো! এ যুগের হয়েও আমি সেকেলে সেজে বসে আছি।সেদিন বলেছিলে আমায় লাল-শাড়িতে অপরুপ লাগে,আজ দেখো! লাল- শাড়িতে Continue Reading →

কখনো কাউকে ভালোবাসতে হয় তবে একজনকে ভালোবাসো

যে তোমাকে ভালোবাসবে তাকে ঠকিও। না হ্যাঁ মানলাম তুমি তাকে ঠকাবে তাকে অবহেলা করবে কিন্তু লাভ কি বল।তুমি তাকে আজ অবহেলা করলে কাল অবহেলা করলে। দেখবে সে খুব কাঁদলো। আজ কাঁদবে কাল কাঁদবে বেশ কয়েকদিন সে কান্না করবে। কিন্তু হঠাৎ একদিন দেখবে সে আর কান্না করছে না সে তোমার অবহেলায় Continue Reading →

জন্মগত অধিকার

জন্মটা ছিল ভীষম কষ্টের;চোখের ভাঁজে,হাতের নখেএনিমিক সাইন নিয়ে ব্যাথার যন্ত্রণায়ঘুম থেকে জেগে উঠি ঠিক তার দশমাস দশদিন পর!প্রচন্ড ঝড়ে সে রাতে ভেংগে পড়েছিল মস্ত আকাশ, বিধাতার দামী এই পৃথিবীতেছিল না কোথাও মাথা ঠেকার আশ্রয় ;জন্মতে বোধহয় আমার অধিকার ছিলনা?তাই সেচ্ছায় মৃত্যুই হবে আমার”জন্মগত অধিকার”। ইমার্জেন্সির ফ্লোরে প্রচন্ড প্রসব বেদনায়পুরো হাসপাতাল Continue Reading →