ভাগ্য পোড়া কলসি

আপনি বড় বড় সংখ্যার একখান পছন্দের তালিকা আমার চোক্ষের সামনে ধরলেন;

তালিকার এক, দুই, তিন সংখ্যার ,একখানেও আমার অস্তিত্ব নাই !

আমার গুন নাই, চিহ্ন নাই। আপনার তামাশা জোড়া চোক্ষের দিকে চাইয়া,

কোনো প্রশ্ন করার খেয়াল আমার হইলো না।

ক্যান জানি মুখেমনে কইলাম,আমার একখান আবদার আছে ,

রাখবেন? আবদারখান হইলো,পছন্দের পাশে ,

অপছন্দের একখান তালিকা যোগ কইরা লইবেন।

সেইখানে টুকবেন, কোন কোন দোষ আপনার ভালা লাগে না !

কেমন মাইয়া মানুষ আপনের মনে ধরে না।

দেখবেন, সব গুলা সংখ্যার লগে আমি গায়ে গতরে মিইলা যামু!

কোনো প্রকারে আমারে বাদ দিতে পারবেন না।

সব মানুষের ,কেমন কইরা ,পছন্দের তালিকায় জায়গা অয়! কন?

অপছন্দে থাইকাই আমার জন্মকালের শান্তি!!

নিজেরে আর নকশী কাঁথার উল্টা পিডের লাহান ছাড়া ছাড়া লাগে না।

ভাও পিডের রেশমী সুঁতার তুনার মত পরিপাট্য লাগে।

সইরা কয়, মনের মানুষের,মনে ধরলে ;কাঁচা ধানে রং মাখে। আমার ভাগ্য পোড়া কলসি।

মনে না ধইরাই;চরভরা খুশি!” ভাগ্য পোড়া কলসি”