সংক্ষিপ্ত ইতিকথা

তুমি যে মিথ্যে হয়ে গেলে রঞ্জ!

একটি দিবস চলে গেলে; আমার স্বপ্নে কেনো এলে না?

তুমি বলেছিলে, অভিমান গাঢ় করতে হয় না।তবে,

অনুরাগ আমি কার উপর ঝাড়বো? লেবুতলায় নিকুচি করেছে!

সে চৈত্রে টাক হয়েছে তো আর গাছ ভর্তি হতে সায় বাদ পরলে।

তুমি নেই বলে না? চিঠি লিখতে মন জাগে না ?

ঐ যে বেলায় বেলায় বানান শিখতে?ভাতের বেলায় রানুবু দুটি কথা কয়।

নিতা, লিলি তেমন বের হয় না। তুমি শহুরে হয়ে একা করে দিলে না।

নিশ্চুপ দ্বীপ এনে দিলে চরান্তরে।বলেছিলে, ময়না রাগ করে নি;অভিমান বেঁধেছে।

সেই তো উড়ে উড়ে ঘর ছেড়েছে। ময়না টা তোমার মতো।

গঙ্গার ঢেউ বুঝে, কুল চিনে না!শীতল সুরে কেউ ‘কুঞ্জ’ বলে ডাক লয় না।

‘উঁহু’ তে কেউ বুঝে না ‘অভিমান’শালিক বেরাতে তিন-চারটি ডাক আনে।

আমার রঞ্জশূন্য গঙ্গাদ্বীপে আমন্ত্রণ পরেছে তোমার পথ চিনবে না জেনেও!

“সংক্ষিপ্ত ইতিকথা”