বঙ্গবন্ধু মুক্তিকামী চেতনার

কবিঃমাহাবুব উদ্দিন ফারুক

তুমি জন্মেছিলে বলেই,জন্মেছে এই দেশ।

তুমি জন্মেছিলে বলেই,পাক-হানাদার হয়েছিলো নিঃশেষ।

তুমি জন্মেছিলে বলেই।পরাধীনতার শৃঙ্খল হতে,পেয়েছি স্বাধীনতা।

তুমি জন্মেছিলে বলেই,

আপামরজনসাধারণ পেয়েছে দেশরত্ন”শেখ হাসিনা” নামক জাতির শ্রেষ্ঠতর মানবতা।।

তোমার প্রেরণায় বাঙ্গালি জাতি পেয়েছে বাঁচারসজিবতা।

তোমায় হারিয়ে সেই জাতি পেয়েছে বিষাদময় নিরবতা।

চিরস্মরণীয় হয়ে রবে,জাতির কাছে। জাতির প্রতি তোমার সেই নিবেদিত মমতা।

বাঙ্গালি জাতি এখনো ভূলেনি,তোমার প্রতি হায়েনাদের সেই নির্মমতা।

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায়, একদিন মুছে যাবে কলুসিত সেই নির্মমতা।

মুজিব আদর্শে প্রদর্শিত হবে, মানুষের প্রতি মানুষের মমতা।

বঙ্গবন্ধু তুমি জাতির মাঝে,চিরঅমর হয়ে রবে।

এটা তোমার চিরস্মরণীয় ক্ষমতা।

তোমার কন্যার হাত ধরে বয়ে যাবে আপামর নারী-পুরুষের সমতা।


কবিতার মতন তবে কবিতা নয়
 
 
মুহাম্মাদ শহীদুল্লাহ্ সিদ্দিকী
কেউ কেউ রাজার মতন…
রাজারা কেউ ‘রাজা’ নয়;
এই যে স্বদেশ বলো!স্বাধীনতা বলো!
আমি “অভিধান আর কবিতার” বাইরে
কোন স্বদেশ দেখিনা,স্বাধীনতা দেখিনা;
তবে মানুষ দেখি,ভালোবাসা দেখি…
তবে সাহস দেখিনা
তবে ঘৃণা দেখি,পরাজয় দেখি;
মানুষেরা জড় হয়ে যাচ্ছে,
বিড়বিড় করে বলছে –
যাকেই পরাই জয়ের মাল্য
সেই হয় স্বৈরাচারী।