পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে

পরীমনি বাংলাদেশের সিনেমা জগতের আলোচিত এক নাম। তার বহু সিনেমা হিট হয়েছে বাংলাদেশের সিনেমা হলগুলোতে। হঠাৎ করেই পরীমনি তার নিজের ফেজবুজ পেজে একটি পোস্ট করে ..যে পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। আসলে বিষয়টি বড়ই পরিতাপের বিষয়। তার চেয়ে আরও পরিতাপের বিষয় যে, পরীমনি সোসাল মিডিয়াতে প্রকাশ করার আগে Continue Reading →

পারিবারিক আদালতে কখন যাবেন

যখন আপনার নিচের পাঁচটি বিষয়ের যে কোন একটি বা একাধিক বিষয়ে সমস্যার উদ্ভব হবে তখনি দারস্থ হতে হবে পারিবারিক আদালতের। ১. বিবাহ বিচ্ছেদ। ২. দাম্পত্য অধিকার পুনরুদ্ধার। ৩.মোহরানা। ৪. ভরণপোষণ। ৫.অভিভাবকত্ব এবং শিশুদের হেফাজত। আইনজীবীর মাধ্যমে আরজি দাখিল করে মামলা দায়ের করতে হবে। নির্ধারিত কোর্ট ফি দিতে হবে। বিবাদী অবশ্যই Continue Reading →

পাখি । তিতিশ্মা মুসাররাত কুহু । রম্য

বোন আমার ভাগ্নেকে পড়াতে বসিয়েছে। আম্মু বার বার বলেছে,ওকে ধমক দিয়ে পড়াবিনা।মারবিওনা। কারণ আমার বোনের রাগ আবার অনেক বেশি। ভাগ্নেও ওর মায়ের কাছে পড়তে চায়না।তবুও জোর করে নিয়ে বসেছে। তো ভাগ্নেকে পড়ানো শুরু করেছে আমার বোন। -বলো আমি হবো,কাজী নজরুল ইসলাম। ভাগ্নে আমার চোখ মুখ কুঁচকে বলতেছে, -আমি কাজী নজরুল Continue Reading →

হৃদয়ের দহন । পর্ব -১২

তোমার সব কাজ শেষ এখন আসতে পারো এখান থেকে জানি না যতসব আর্বজনা কোথা থেকে চলে আসে? সামিনা হনহন করে বেড়িয়ে যায় বাড়ি থেকে। মিম ইফতি সাহেব কে খাইয়ে এসে ইমানকে জিজ্ঞেস করে, তুমি এমন করলে কেন আপুটার সাথে? তুমি না বুঝলে ও,আমি বুঝি ও ভালোবাসে তোমাকে। – তবে আমি Continue Reading →

মাফিয়া কিং । লিখা- মেহরাব কাব্য

-কি মাম্মা নতুন এসেছো ( উড়না ধরে) -হাহা পাখিটা সেই। চলো মামনি একটু t20 খেলে আসি – যা মামা কি ফিগার রে মাইরি ঠাস ঠাস ঠাস করে গালে চড় পড়লো সবাই হা করে তাকিয়ে পড়লো। এতক্ষণে মজা নিচ্ছিলো দেখে দেখে এখন চুপ হয়ে গেলো সবাই – রেসপেক্ট গালর্স। মেয়েটির হাত Continue Reading →

মাফিয়া কিং । পর্ব-০২

কালো জাম গাছের চারপাশ ঘিরে লোকজন গোল হয়ে দাড়িয়ে আছে নীলাঃ স্যার স্যার ঐখানে ঝামেলা হচ্ছে মনে হয় স্যারঃ পড়ায় মন দাও ওদিকে শের একাই যথেষ্ট স্যারের কথা শুনে সবাই হা হয়ে গেলো। রোজিঃ স্যার ওখানে তো নতুন ছেলেটা আছে ওর যদি কিছু হয়ে যায়। স্যারঃ তোমরা ক্লাস থেকে কেউ Continue Reading →

মাফিয়া কিং । পর্ব ০৩

দিবাঃ আইরিব আপু কি করলো এটা আদনানঃ তুই কেন ওর অন্যায়ের কথা বলতে গেলি। আমার অনেক বড় ভূল হয়ে গেলো দিবাঃ কিভাবে মানাবে এখন আপুকে আদনানঃ জানি না। দিবা গাড়িতে উঠে চলে গেলো। আদনান ও চলে আসলো। বিকালে মেহেরাব রাস্তা দিয়ে হাটছিলো। হঠাৎ চোখ যায় পার্কের ভেতর। একটা বেঞ্চির একটা Continue Reading →

মাফিয়া কিং । পর্ব ০৪

বেগুনি রংয়ের আবছা লাইটের আলোয় এগিয়ে আসছে একটা ছেলে। যখনি সবার সামনে আসলো তখন সবাই পিছে সরে গেলো। ছেলেটার পিছনে অনেক গার্ডস। সবার হাতেই পিস্তল। লাইট জ্বলে উঠলো সবাই পিছনের দিকে সরে যেয়ে বলে উঠলো সাইমন মেহেরাব বেশ অবাক হয়ে বোকা চাহনিতে ওদের দিকে চোখ ঘুরিয়ে দেখছে বেশ পরিপাটি আছে। Continue Reading →

মাফিয়া কিং । পর্ব ০৫

আইরিন ছুটে চলে আসলো মেহেরাব বেহুশ হয়ে গেলো। প্রিয়ন্তিকে ধরে নিলো রিয়াদ। প্রিয়ন্তিকে গাড়িতে উঠানোর ইশারা করলো। রিয়াদ মেহেরাব কে দেখে চমকে যায়। সাথে সাথে নিজের জিপে করে নিয়ে হাসপাতালে চলে যায়। আদনান ও ততক্ষণে চলে আসে। আইরিনকে নিয়ে হাসপাতালের দিকে ছুটে যায়। প্রিয়ন্তিঃ আমাকে আটকিয়ে রাখার বল এখনো হয়নি। Continue Reading →

মাফিয়া কিং । পর্ব ০৬

রিয়াদঃ প্রিয়ন্তি কোথায় রমজানঃ স্যার আমরা এখানে রেখেই তো সবাইকে নিয়ে চলে গেছিলাম রিয়াদঃ কেউ এসেছিলো রমজানঃ ইসলাম সাহেব রিয়াদঃ ওকে আমি একটু হাসপাতালের দিকে যাচ্ছি রমজানঃ স্যার বলি কি রিয়াদঃ কি রমজানঃ ওদের পিছনে না লাগাই ভাল হবে রিয়াদঃ কি বলছো ভেবে বলছো তো রমজানঃ স্যার ওদের সাথে পেরে Continue Reading →

মুখে ব্রণ । লিখা- মেহেরাব কাব্য

-মেয়েটা কে রে – আমাদের ক্লাসেই পড়ে নাম জিম – শুধুই কি জিম নাকি আগে পড়ে আর কিছু আছে -জান্নাতুন নাহার জিম -ও কি সবসময় বোরকায় পড়ে আসে? -হ্যা। বোরকা ছাড়া তো কখনো দেখিনি – চোখ দুটো খুব মায়াবি রে (বুকের বাম পাশে হাত দিয়ে) – কি হলো তোর হঠাৎ Continue Reading →

মুখে ব্রণ । পর্ব- ০২

বন্যাঃ এই শোন কে কি বললো আর না বললো তাতে কিছু যায় না। তুই আমার সাথে কলেজে যাবি এটাই কথা। আর তোর মানকি টুপি খুলে যাবি এখন ( দরজার কাছে দাড়িয়ে) মাঃ তুই মা ওকে একটু বোঝা। ( মন খারাপ করে) তানজিলঃ তুই কখন আসলি বন্যাঃ কোচিং-এ র টাইম হইছে Continue Reading →

মুখে ব্রণ । পর্ব- ০৩

আশরাফ চৌধুরীঃ দাঁড়াও (ধমক সুরে) কাব্য বাসায় ঢুকে নিজের রুমে যাচ্ছিলো তখন আশরাফ চৌধুরী ধমক শুনে দাঁড়িয়ে গেলো। ভ্রু কুচকে কাব্য তাকালো। আশরাফ চৌধুরীঃ আমার মান সম্মান আর কত খাবি তুই হ্যা। তোর পড়াশোনা সব বন্ধ আজ থেকে ( রাগে) কাব্যঃ আব্বু কি করছি আমি যার জন্য আপনি আমার সব Continue Reading →

মুখে ব্রণ । পর্ব- ০৪

নিরা যেতে লাগলো আর আসফিকে বলতে লাগলো -এতদিন ভার্সিটিতে ছিলো না বেশ ভালই ছিলাম। সবাইকে মুরগি বানানো যেতো এখন আমাদের হতে হবে”। -তোকে আমি আগেই বলেছিলাম শুনলি না তো বোঝ কেমন লাগে” -আসফি কাব্য ভাইয়াকে কিভাবে লাইনে আনা যায় বলতো।” – তা তোকে ভেবে পড়ে জানাই। “ কাব্য জিমের কপালের Continue Reading →

মুখে ব্রণ । পর্ব- ০৫

তাবাচ্ছুম তানজিলকে দেখে জরিয়ে ধরে কেদে দিলো। ইমন আর কাব্য হা হয়ে তাকিয়ে আছে। পুরো ভার্সিটির সবাই ওদের দিকে তাকিয়ে ছিলো। তানজিলের চোখ বেয়ে পানি ধরছে আর বলতে লাগলো -কই ছিলি তুই বন্যা। এতদিনে একটা খোজ ও নিসনি। কি করছিস এ তোর অবস্থা। তুই সেদিন চলে আসার পর থেকে মা Continue Reading →

মুখে ব্রণ । ৬ ও শেষ পর্ব

আসফি নিরা ভার্সিটির গেইটের সামনে বসে আড্ডা দিচ্ছিলো হঠাৎ করেই গেইটের দিকে চোখ যেতেই চোখ বড় বড় হয়ে যায়। জিম গাড়ি থেকে নামলো পাশে আশরাফ চৌধুরী দাঁড়ানো -মামনি তুমি যাও আর হ্যা ছুটির পর আমি তোমাকে নিতে আসবো। -ঠিক আছে আঙ্কেল। জিম ভার্সিটির ভেতর ঢুকলো আশরাফ চৌধুরী গাড়ি নিয়ে চলে Continue Reading →

অবহেলার সংসার । পর্ব -১০

ঠিক আছে আমি তাই করবো তার কাছে ক্ষমা চাবো।যতদিন না ক্ষমা করে আমাকে, ততোদিন চেষ্ট করেই যাবো। হুম এটাই করা ঠিক হবে। কফি তো ঠান্ডা হয়ে গেলো রে কথা বলতে বলতে। ঠান্ডা হয়েছে তো কি হয়েছে ঠান্ডা কফি খেতে আমার ভালো লাগে। তাই আগে তো তোর এই অভ‍্যাস ছিলো না।তা Continue Reading →

অবহেলার সংসার । পর্ব -১১

ভাইয়া তোর হাতে কি ওগুলো আমাকে দেখা দেখি? আরে এগুলো কিছু না এমনি।(বাসার ভিতরে ঢুকতেই এশা আমাকে জিগ‍্যেসা করতেছে ) কি এমন দেখা বলতেছি না হলে বাবাকে বলে দিবো? এশা তুই শুধু শুধু বাবার ভয় দেখাস কেনো রে। তোকে বাবার ভয় দেখাবো না তো কার ভয় দেখাবো বাবাকে ছাড়া কি Continue Reading →

রাস্তার মেয়ে । শেষ পর্ব

কিছুক্ষণ পর নিজেই ঘর থেকে বের হয়ে এলাম। এসে দেখি কাব্য বাচ্চাটাকে খাওয়াচ্ছে। আমাকে দরজার সামনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে কাব্য বললো। –“জানো মিরা, আমি না ওর একটা নাম রেখেছি ‘রাইসা’ সুন্দর না? কিন্তু আমি কোন উত্তর না দিয়ে বিরক্তির সাথে বাচ্চাটার দিকে তাকিয়ে আছি। তখন কাব্য বললো। –“তোমার ওকে দেখে Continue Reading →

রাস্তার মেয়ে

~স্যার, আমার বইনডারে কতক্ষণের লাইগা একটু রাখবেন? আমি একটু পর আইয়াই নিয়া যামু। আমি মিরা, আর আমার স্বামী কাব্য। সপ্তাহের অন্যান্য দিনের ব্যাস্ততা কাটিয়ে প্রতি শুক্রবার আমাদের কোথাও না কোথাও যাওয়া হবেই হবে।কিন্তু এই শুক্রবার মানে আজ শরীর খানিকটা খারাপ থাকায় বেশি দূরে কোথাও না গিয়ে কাছেই একটা পার্কে এসে Continue Reading →