টুকরো চুকরো গল্প

টুকরো নং -০১ কাউকে মুগ্ধ করবার মতোআমার কোন রুপ বা গুন নেই,আমি অসম্ভব সুন্দরী নই! আমার গায়ের রং ততটা উজ্জ্বল নয়,আমার লম্বা চুল বা ড্যাব ড্যাবে চোখ নেই।আমার জোড়া ভ্রু,ঠোঁটে তিল বা গালে টোল নেই,আমার গানের সুরেলা কন্ঠ নেই।আমি তেমন সুন্দরি নই! আমার গায়ের রং চাপা, সুরু নাক,ছোট চুলচোখের নিচে Continue Reading →

ভালো থাকো প্রিয় বাবা

জানো বাবা আজ ” বাবা দিবস”অথচ তুমি নেই পাশে,পৃথিবীর মায়া ছেড়ে চলে গেছো না ফেরার দেশে। কাকে জানাই শুভেচ্ছা? জিড়িয়ে ধরি কাকে?কে এখন আমায় মা বলে জড়িয়ে নিবে বুকে?হারিয়ে গেছে সকল আহ্লাদ,বাবা তোমারি সাথে!জানো বাবা আজ ” বাবা দিবস”অথচ তুমি নেই পাশে,পৃথিবীর মায়া ছেড়ে চলে গেছো না ফেরার দেশে। তোমাকে Continue Reading →

বাঁচার মতো বাঁচতে চাই

সুখের তেষ্টায় দুঃখ পান করে,আমার অসুখ হয়েছেআমি সে অসুখ হতে মুক্তি চাই। আমি একটু চিৎকার করে কাঁদতে চাই,চাপা কান্নায় দম বন্ধ হয়ে আসেআমি এ চাপা কান্না হতে রেহাই চাই । বহুদিন আয়নায় আমি আমার হাসি মুখ দেখি নাএই বিষন্নতা আর ভালো লাগে না,আমি মন থেকে একটু হাসতে চাইআমি আমার আগের Continue Reading →

আমি তেমন নই

ভালোবাসার বিনিময়ে ভালোবাসা পাবো না বলে ছেড়ে দিবো,আমি এমন ভালোবাসিনি প্রিয়। কষ্টের বিনিময়ে আঘাত দিবো,আমি এমন ভালোবাসিনি প্রিয়। তুমি ভুলে গেলে,আমিও ভুলে যাবো,আমি এমন ভালোবাসিনি প্রিয়। অপেক্ষা না করে উপেক্ষা করবো,আমি এমন ভালোবাসিনি প্রিয়। যেতে চাইলে ছেড়ে দিবো,আমি এমন ভালোবাসিনি প্রিয়। আমি ভালোবাসা দিয়ে জড়িয়ে নিবো,নিজের রাগ- অভিমান কমিয়ে দিবো।বুঝিয়ে Continue Reading →

আত্মকথা

কাকে বলে বোঝাবো নিজের কথা গুলো,কেই বা তা বুঝবে? এসব ভেবে সকাল হুলিয়া দুপুর গড়ায়,বিকেল গড়িয়ে রাতঅথচ খুঁজে পাইনা ভরসা দেওয়ার মতো দুটো হাত। দিনশেষে নিজেই নিজেকে দেই সান্ত্বনা,স্বার্থপর দুনিয়ায় কেউ কারো না। প্রিয় আমি,নিজেকে শক্ত করো-স্বার্থপর দুনিয়ায় আপন মানুষ খুঁজো নাঅযথা দুঃখ ছাড়া কিছুই পাবে না। নিজেই নিজের বন্ধু Continue Reading →

অবলা নারী

নারীরা সামান্যতেই কাঁদে,হ্যাঁ নারীরা কাঁদে,তবে অকারনে কাঁদে না।প্রতেকটা নারীর চাপা কান্নার পেছনে কিছু না কিছু লুকায়িত কারন থাকে,যে কারনগুলো নারী কখনো কাউকে বলতে পারে না। নারী কি কেবল নিজের জন্য কাঁদে?নারীকে কাঁদতে হয়,কাঁদতে বাধ্য হতে হয়নারীকে পরিবারের ব্যাথায় বিচলিত হতে হয়। নারী সামান্যতেই কাঁদে,তাই বলে কি নারীর ধৈর্য নেই?নারীকে দান Continue Reading →

বেঁচে থাকার দায়ে বেঁচে আছি

তোমাকে ছাড়া বাঁচবো না,বহু বছর আগে খুব বড় মিথ্যা বলেছিলাম প্রিয়।আমাকে ক্ষমা করে দিও। এ শহরে রোজ রোজ বহু সম্পর্কের বিচ্ছেদ হয়বহু স্বপ্নকে গলা টিপে হত্যা করা হয়,বহু মন ভেঙে দেওয়া হয় কাঁচের ন্যায়।তবু তারা বেঁচে থাকে-অনুভূতি ছাড়া মন নিয়ে,দীর্ঘশ্বাস ভরা বুক নিয়ে,অভিশপ্ত এক জীবন নিয়েআমিও বেঁচে আছি তাদের ন্যায়। Continue Reading →

সঠিক পথের সন্ধানে

ঝরা পাতার মতো ঝরে গেছে আমার এ জীবন।পথ হারা পথিক পাই না কোনো কিছু।দিশেহারা হয়ে আমি হাঁটি পিছু পিছু।দিন পেরিয়ে আসে যখন রাত।জোসনায় রাতে আমি জোনাকিদের সাথে খেলা করি সারারাত।রাত পেরিয়ে যখন হয় সকাল।ঘুম ভেঙে যায় পাখির কিচিরমিচির শব্দে।আমি আবারও হেঁটে যাই।ভোরের স্নিগ্ধ শিশিরে ভেজা ঘাসের উপর দিয়ে।আমার এক একটি Continue Reading →

কবিতাঃ দুরত্বের সম্পর্ক

আমি কখনো বলিনি যে আমাকে ভালোবাসতেই হবে।শুধু চেয়েছিলাম আমাদের খুব ভালো একটা সম্পর্ক থাকুক।আমি চাইনি কখনো আমাদের সম্পর্কটা বিচ্ছেদ হোক।শুধু চেয়েছিলাম আমাদের সম্পর্কটা অটুট থাকুক।আমি চাইনি আমাদের যোগাযোগটা কখনো বিছিন্ন হোক।শুধু চেয়েছিলাম আমাদের যোগাযোগটা সর্বকালের জন্য অটুট থাকুক।আমি চাইনি কখনো আমাদের মাঝে দুরত্ব সৃষ্টি হোক।শুধু চেয়েছিলাম সারাজীবন তোমার পাশে থাকতে।আমি Continue Reading →

এক পৌষের সোমবার

হৃদয় যখন পৌঢ়ত্বে ঠিক, টুপ করে আপনাকে ভালোবেসে ফেলেছিপদ্ম পাতায় জল রেখে ভুলে যাই খোপার ফুলঅবসরে আপনাকে ভাবতে বসে ভোরের সংসারভরা কতোশতো ভুল।দাদাকে আমি পৌষের সাতের কথা বলেছি,সাপ্তাহিক বার আমার মনে রাখতে না পারায় ঠিকঠাক কোনো কাজই রূপায়িত হয় না,লোকমুখে সোমবারের কথা শুনলে শুধু দু’ দণ্ড থমকে দাঁড়াই।আমাদের প্রথম দেখায় Continue Reading →

এক্কা-দুক্কা প্রেম

আমরা এক্কা-দুক্কা করে আবার প্রেমে পড়বো। আজকাল আর এই আধেক প্রেমে কেমন যেন একটা স্যাঁতস্যাঁতে ভাব চলে এসেছে।দিনের এক-তৃতীয়াংশ সময় মুঠোফোনের দিকে তাকিয়ে থেকে,আমাদের চোখে ছানি পড়ে যাচ্ছে,জং ধরে যাচ্ছে আমাদের মনে।বেড়ে যাচ্ছে মনোমালিন্যতা।প্রকৃতি আমাদের অভিশাপ দিচ্ছে দিনের পর দিন। এজন্যই আমরা আবার এক্কা-দুক্কা করে আবার প্রেমে পড়বো। যেভাবে নব্বই Continue Reading →

দম ফুরানো ফানুষ

কতকথা শেষ,চলে গেলো বিস্মৃতিরর আড়ালে,কেন তুমি বলো হৃদ মাঝটা নাড়ালে?ভালোই তো ছিলাম,কেন এলে? ফানুসের মতো গেলে আবার উড়ে চলে।আচ্ছা,ফানুসের ঐ আগুন যখন নিভে যায়,তখন নিচের কেউ একজন তো তাকে পায়।তুমিও কী সব অভিমান রেখে আসবে ফিরে?ফানুসের মতো আসবে আমার তীরে?ফানুস কিন্তু অন্য কোথাও পড়ে,দূরে চলে যায় কোন এক প্রবল ঝড়ে। Continue Reading →

পার্থক্য

তুমি প্রেমে পড়েছিলেআর আমি ভালোবেসে ছিলাম।তুমি মিথ্যা মোহের জালে বেঁধেছিলেআর আমি মায়ার জালে আটকে ছিলাম।তুমি প্রয়োজনে প্রিয়জন করেছিলেআর আমি প্রিয়জন ভেবে তোমার সবপ্রয়োজন মিটিয়ে গেলাম। তুমি হাতে হাত রেখে স্পর্শ খুঁজেছিলেআর আমি খুঁজেছিলাম বিশ্বাস।অথচ সব যেন নিমিষেই ভেঙে গেলদিন শেষে রয়ে গেল শুধু একটা দীর্ঘশ্বাস।তুমি চাইলেই পারতে থেকে যেতেশুরু থেকে Continue Reading →

নির্ভরতার শেষ সম্বল -শরিফুল ইসলাম

নবাগত সৃষ্টি, মাতৃগর্ভ থেকে ভূমিষ্ঠ সন্তানকে;প্রাণ দিলো কে? আল্লাহ্‌।মৃত্তিকা থেকে তৈরি, মানুষ জাতিকে-আশরাফুল মাখলুকাত, সৃষ্টির সেরা বলে সম্মান দিলো কে?ওইতো এক আল্লাহ্‌। চরম হতাশায়, ভগ্ন হৃদয়; অশান্ত মন-কার কাছে সাহায্য চায়?আল্লাহ্‌।মস্তিষ্কের সব পরিকল্পনা যখন ব্যর্থ,আশা যখন নিরাশা;পথ যখন কণ্টকাকীর্ণ, অমসৃণ।অসহায় মন কার কাছে প্রার্থনায় রত হয়?সেই মহান মনিব, আল্লাহ্‌। নাবিক Continue Reading →

তুমিই শুধু কৃষ্ণচুড়া – মোঃ হসিন সাইন

আমার আকাশ ভরপুর নয় তারায় তারায়,তোমার চাঁদ সে আকাশে আলো ছড়ায়।আমার বাগান ফুলে ফুলে ভরপুর নয়,সেথায় শুধু তোমার গোলাপ সুগন্ধময়। আমার বনে তুমিই শুধু কৃষ্ণচুড়া,তুমিহীন সব কবিতা ছন্দহারা।আমার রাজ্যে তুমিই আমার একলা রাণী,তোমায় দিলাম আমার অধম হৃদয়খানি। রাত্রি জুড়ে তুমিই আমার স্বপ্ন শুধু,তুমিহীন আমার হৃদয় শূন্য, ধু…ধু…তুমি আমার বিষম শীতের Continue Reading →

কবিতা – হাজার পাখির মধুর সুরে

হাজার পাখির মধুর সুরেদ্বীন মোহাম্মাদ দুখু ভোর বেলাতে ঐ শোনা যায়কিচিরমিচির পাখির ডাক,শীতের ভোরে কুটুম পাখিরঙিন করে নদীর বাঁক! পাতার ফাঁকে পাখির বাসাবাতাসে দোল খায় দেয় দোল,গাছের ডালে পাখির বাসায়ছোটো পাখির মা মা বোল! টুনটুনি আর চড়ুই পাখিঘরের কোণে করে বাস,ঘরের কোণে মধুর গানেকাটে চাষির বারো মাস। বন বাদাড়ে কোকিল Continue Reading →