ভয়

বিদঘুটে অন্ধকারের মাঝে তুমি কিভাবে হেঁটে চলো ! আমি তো কিছুই দেখি না! একটু হাঁটতে আমার যেখানে ভয় হয় সেখানে তুমি বলো, তোমার বাড়ির বারান্দা টাতে দাঁড়িয়ে তোমার যে রক্ত গোলাপ ফুটে ওঠা বাগানটার দেখা মেলে, আমি সেখানে দাঁড়িয়ে থাকতাম । তুমি বলেছিলে এই অন্ধকার ঠেলে ছুটে যেতে তোমার সন্নিকটে। Continue Reading →

শূন্য অনুভূতি

এখন আর কবিতা লেখার অনুভূতি আসেনা । মনের মাধুর্যতা নিয়ে লিখব, সেই অনুভূতি এখন মনের অতল গহব্বরে খুঁজে পাইনা। প্রকৃতির ডানা কাটা পরী এখন আর বলে না, তুমি সব ছেড়েছুড়ে চলে আসো আমার সন্নিকটে। আমি তোমার মনকে রাঙ্গিয়ে দিবো আমার সকল মায়ায়। বাতাস কানে কানে এসে বলেনা তোমার জন্য উড়ো Continue Reading →

মালতির গাছ/ তোরি জন্য কাব্য

মালতির গাছ মালতি নাকি আমার বাড়ির সম্মুখে আসিয়া বাগান থেকে গোলাপ সহ গাছ তুলিয়া নিয়া গেছে । পাড়ার সকলে আমার শরীরে কোন রাগ দেখিতে না পাইয়া বলা বলি করিছিল মালতির সাথে মোর ভাব চলিতেছে । ঐদিকে পরিচর্যা বিহীন আমার গাদা ফুল গাছ মারা যাইতেছে সেই দিকে কারো দৃষ্টি পরিছে না Continue Reading →

কেনো এতো অভিমান/ আমি নই একা

কেনো এতো অভিমান বহুদিন দেখা হয় না কথা হয় না গোপনে । বলা হয় না ভালোবাসি নিভৃতে যতনে । চলা হয় না পথ হাতে রেখে হাত । কুয়াশার চাদরেই মোড়ানোআমি একা নির্বাক । কাশফুলের রাজ্যে হয়না ঘুরে বেড়ানো । দর্শন করা হয় না জোনাকির আলো ছড়ানো । তুমি নেই বলে Continue Reading →

কবিতা – সমগ্র

বিষ জলন্ত আগুনের সূত্রপাত তোমার শেষ বেলায় বলে যাওয়া মুখের বচন থেকে শুরু । সেটা এখন বেড়ে বেড়ে দাবানলে রূপ নিচ্ছে । কখন যেনো কয়লা হয়ে পরে থাকে সব কিছু ! অভিশপ্ত অতীত হয়ে যাবে , তোমার আমার জীবনের প্রতিটি মুহূর্তের কথা মেলা হয়ে যাবে বিষাদের সুর । রপ্ত করা Continue Reading →

কবিতা -স্মৃতি চারণ / শেষ সময়

#স্মৃতি চারণ আজও সুখের স্মৃতি চারণে ভুল করে ফেলি । আজও নিজের গহিন সীমানার, কিছু জল । আঁধারে লুকিয়ে নিরবে মাটিতে ফেলি ‌। আজও স্মৃতি যে স্মৃতি তে কাশবন ফুলে ফুলে । কারো এলো চুলে, মুক্ত জরা হাসিতে মোর প্রাণ খানা দুলে । আমি সেথায়, দূর সীমানায় দাঁড়িয়ে । তার Continue Reading →

শহরের রাত

#শহরের রাত শহরটা আলোকিত হয়ে উঠেছে সূর্যের নয়, চাঁদের নয় লাইটের আলো, লাল নীল হলুদ রং বেরংয়ের।অন্ধকারের মাঝে জোনাকির মতো আলোকিত হচ্ছে প্রত্যেকটি জানালা। আকাশের তারাগুলো গল্প করছে তার আপন নিয়মে। মেঘ ভেসে যাচ্ছে তার নির্দিষ্ট গন্তব্যে,হয়তো ঠেসে পড়বে কোন পাহাড়ের চূড়ায়। আমিতো দিব্যি তাকিয়ে আছি, শহরের এই অজানা রূপ Continue Reading →

বাবা তোমাকে ভালোবাসি

আমার যেইদিন জন্ম হয়েছিলো সেইদিন তুমি নাকি প্রথম আযান দিয়েছিলে আমার কানে? এরপর কোলে তুলে নিয়েই নাকি ডেকে ছিলে আমাকে মা নামে। তারপর তোমার সমস্ত আদর দিয়ে বুকের গভীরে চেপে ধরতে চেয়েও অতটাও জোড়ে ধরোনি যদি আমি ব্যথা পাই এই ভয়ে!আমার জীবনে প্রথম নাম ডাকটিও নাকি ছিল তোমার উদ্দেশ্যে? আমি Continue Reading →

উপসংহার / অপূর্ণতার পৃথিবী

#উপসংহার তোকে নিয়ে শেষের পাতায় উপসংহার লেখা,সাজ পালকিতে রক্তের আলপনা আঁকা।মেঠো পথে ধুলোয় লুটিয়ে প্রেমকাব্য!খোঁপা খোলা ঝলমলে রোদ্দুর কাঠগোলাপের সদ্য পাপড়ি মেলা কথা। খোলা জানালায় সাদা পর্দার মৃদু কম্পন,একলা মনে শীষ দেওয়া ভোরের দোয়েল।তোকে ভেবে ভেবে কেঁটে যায় অলস দুপুর,অগোছালো কথার রাতে অভিমানী কিছু গান। তোকে ঘিরে অবাধ্য মনের শান্ত Continue Reading →

অ-তে অমানু

#অ-তে অমানু স্বরবর্ণের ‘অ’ টার কাছে আমি সব সময়ই বিধ্বস্ত হয়েছি। ছোট বেলা থেকেই অ তে অংক বিষয়ে আমি ভীষণ দুর্বল ছিলাম, যখন বুঝলাম অংক মানে যুদ্ধের ময়দান আর আমি নামে মাত্র একজন ভীতু সৈনিক তবুও আমি হিসাব বিজ্ঞানকেই বেছে নিয়েছিলাম কারণ যেখানে ভয় লুকিয়ে থাকে সেখান থেকেই পথ চলা Continue Reading →

বেঁচে থাকার অপর নাম বই পড়া

#বেঁচে থাকার অপর নাম বই পড়া ফুলশয্যার প্রথম রাতে বর যখন বলেছিলো কি লাগবে তোমার? সাত পাঁচ না ভেবেই বলেছিলাম আমার একটা বইয়ের লাইব্রেরি চাই! বর কিছুক্ষণ মুখের দিকে তাকিয়ে ছিলো অবাক দৃষ্টিতে, তবুও মানুষটা মৃদু হেসে বলেছিলো অবশ্যই দিবো। সেই সান্ত্বনাটুকু নিয়ে আমি বেশ তৃপ্তি পেয়েছিলাম সংসার জীবনের প্রথম Continue Reading →

স্ববিরোধী উপলব্ধি

স্ববিরোধী উপলব্ধি আধুনিকতার নামে যে মেয়েটা সালোয়ার ছেড়ে জিন্স প্যান্ট পরে, তাকে বরাবরই আমার কাছে অসামঞ্জস্যপূর্ণ মানুষ মনে হয়। পোশাকের রদবদলে কি মেয়ে মানুষ কখনো ছেলে মানুষ হয়? সালোয়ার কামিজ বা শাড়ী কিংবা বোরকা পড়েই তো বাঙালি নারীদের আসল সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলা যায়। ছেলেরা যদি জিন্স প্যান্ট ছেড়ে মেয়েদের সালোয়ার Continue Reading →

সমঝোতার জীবন

#সমঝোতার জীবন আমাদের মাঝে আজকাল আর তেমন কথা হয় না। দাম্পত্য জীবনে মানুষটা নাকি এখন ভীষণ হাঁপিয়ে গেছে! কত কথা সারাদিন জমিয়ে রাখতাম মানুষটাকে বলবো বলে, কিন্তু সন্ধ্যার পর যখন অফিস শেষে সে বাসায় ফিরে আসে, তখন যেনো এক পৃথিবীর সমস্ত বিরক্তির ছাপ তার চোখে মুখে ভীষণ ভাবে ফুটে ওঠে। Continue Reading →

কবিতার রঙ হবি মেয়ে

তুই আমার কবিতার রঙ হবি মেয়ে? আমি নাহয় প্রতি লাইনে লাইনে তোকে আঁকবো হরেক রকম শব্দের রঙে। প্রথম লাইন লেখবো সবুজ রঙে,ফেলে আসা তোর সেই দুরন্ত শৈশবের দিন গুলি! সেই লাল, নীল ফড়িং এর পিছনে ছুটতে ছুটতে কবে যে কৈশোরে পা দিলি তা তো খেয়ালই করিনি? কৈশোরের সেই দিন গুলোকে Continue Reading →

শিক্ষকের ঋণ

শিক্ষকের ঋণ যে মানুষটার শিক্ষায় আজ আমি নিজেকে মানুষ বলে দাবী করি তিনি হচ্ছেন আমার শিক্ষক। মা বাবার পরে যে মানুষটা আমাদের হাতে ধরে পৃথিবী চিনিয়ে দেন সেই মানুষটাকে একটা সময় এক প্রকারে আমরা ভুলেই যাই। পুরো শিক্ষা জীবনে হাজারো অভিযোগ থাকে আমাদের এই শিক্ষকদের উপরে! অথচ একটিবারও তখন ভাবিনি Continue Reading →

বৃক্ষ বনাম বৃদ্ধ

বৃক্ষ বনাম বৃদ্ধ মৃত বৃক্ষের যেমন শেষ পরিণতি হয় জ্বালানির জন্য, ঠিক তেমনই বয়োজ্যেষ্ঠ মানুষ গুলোকে কিছু সন্তানেরা রেখে আসে বৃদ্ধাশ্রমে! ঠিক প্রকৃতি যেমন করে পুরাতন রুপ ছেড়ে নতুন করে সাজে। তেমন করে সংসারের বোঝা মানুষটারও বিদায় চায় অনেকেই, নতুন নতুন জন্মতেই যেনো পূর্ণ হয় একটা সংসার। অবহেলার বিষে পিষে Continue Reading →

অমীমাংসিত সত্য

অমীমাংসিত সত্য শেষ রাতে লক্ষ্মী পেঁচার চোখে নৃত্যময়ী এক অশরীর শরীর, ঘন কুয়াশার চাদরে মোড়ানো নগ্ন চোখের কামনা! বট তলায় জলে ভেসে এসেছে এক নামহীন ধর্ষিতার দেহ, পুষ্প তোরণে সেই ধর্ষকের কোন সভায় হচ্ছে হয়তো উল্লাস! অতঃপর নতুন সূর্যে আবার রাঙাবে এই সমাজ, পেঁচাটা আসন বদলে নিবে তেঁতুল গাছের নতুন Continue Reading →

পোস্টমর্টেম রিপোর্ট |অনন্যা জান্নাত

মানুষরুপী পশুদেন হিংস্র বর্বরতায়বিষ্ন্নতায় নিবিড় কালো আঁধারে ঢেকে যায় জীবন। নিকষ কালো আঁধার ক্রমশ গ্রাস করে গহিনে যত আশা-আকাঙ্ক্ষা আর সুখস্বপ্ন সভ্যতার দাঁতাল শকুনেরা ছিঁড়ে -খুঁড়ে খায় মানুষের মৌলিক মানবিক অধিকার! বাঁচতে চেয়ে মরে যাই হাজারবার,জীবন -উদ্যানে হোলি খেলতে গিয়ে দেখিছিটেফোঁটা রক্ত গড়িয়ে পড়ছে ধূসর, বিবর্ণ মাটি চুয়ে চুয়ে। ঘটনার Continue Reading →

ধর্ষকদের বিচার করো-না হয় নারী হত্যা করো

কোনটা ভুল আমি নারী এটা ভুল? নাকি আমার কাপড়ের সাইজ ভুল? কারো কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়া ভুল?? যদি এটা ভুল না হয়!! তবে কেনো চাপাতির কোপ খেতে হয়? রাজপথের ধর্ষিতা হতে হয়?ধর্ষণের বিচার না পেয়ে কেনো বাবা মেয়েকে ট্রেনের নিচে পড়ে মরতে হয়? এগুলো কি ভুল নয়? যদি এগুলো ভুল Continue Reading →

কবিতা : ভালোবাসার সংসার

কবিতা : ভালোবাসার সংসার টোনা বলে ,ও টুনিকৈ গেলি তুই এরকম কি ভালো লাগে দূরে থাকা থাকি। কাছে এসে বস একটু ভালোবাস আমি কি তোর পরতোরে নিয়েই আমার জগৎ সংসার। আমায় একা করে দিস নাআড়ালে আর থাকিস নাতুই যে আমার বড়ই আপনসে কথা কি জানিস না। আমি কিন্তু ছেড়ে ই Continue Reading →