Breaking News

তুমি আমার | পর্ব- ০৪

সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি হইয়ে গেছে,,,, তাড়াহুড়ো করে ফ্রেস হইয়ে নিলাম,,,রেডি ভার্সিটিতে যাব আম্মাজান না খেয়ে বের হতে দিবেন না তাই নিজ হাতে খাইয়ে দিলেন।।। ভার্সিটিতে আসতে আসতে দেড়ি হয়ে যাওয়ায় ফাস্ট ক্লাস মিস হয়ে গেলো।।  সেকেন্ড ক্লাস এটেন্ড করার জন্য তাড়াহুড়ো করে পারলে দৌড়ে যাচ্ছিলাম।।।। লাইব্রেরীর পাশে হঠাৎ ওড়নায় টান পড়ায় চরম বিরক্তি নিয়ে পেছনে ফিরে তাকালাম,,,,কোনো এক ছেলের হাতে ওড়নাটা আটকে আছে।।।ব্যাপক মেজাজ খারাপ হচ্ছে,,,,তাই ভ্রু কুঁচকে ছেলেটির দিকে তাকালাম,,  তাকিয়ে অবাক হয়ে গেলাম,,, এত দেখছি সেই ছেলে অথাৎ আমাদের শ্রদ্ধেয় অনয় ভাইয়া,,,,।।। কিন্তু উনি আমার ওড়না নিয়ে টানাটানি করছেন এ কেমন বিহেভিয়ার,,,,  রাগে ফুঁসতে ফুঁসতে বললাম,,
এই যে?? আপনার সমস্যা কি আমার ওড়না টেনে ধরার সাহস পেলেন কথাই থেকে? এই আপনাদের মতো ছেলেদের জন্যই দেশ আজ রসাতলে।।।
হোয়াট??(মোড,নিয়ে)
এই ভাবে লাইব্রেরীর সামনে দাড়িয়ে মেয়েদের দিকে হা করে তাকিয়ে একটা মেয়ের ওড়না নিয়ে টানাটানি করছেন লজ্জা করেনা।।।। ?
ওহ,,হ্যালো,,,আমি আর মেয়েদের দিকে তাকানো,, ইম্পসিবল,,, ?
কেন??আপনি গে নাকি??(কনফিউজড হয়ে)
হোয়াট দ্যা হেল আর ইউ টকিং?? আইএম সেয়েং দ্যাট,,আইএম অনয় চৌধুরী,,, সো….আমি মেয়েদের দিকে নয়,, মেয়েরা আমার দিকে তাকিয়ে থাকে,,,(ভাব নিয়ে)
 ভালো জোক ছিলো।।।কিন্তু এখন হাসতে পারছিনা।।।
হেই? আই এম নট জকিং ওকে?? এন্ড স্টপ আর্গিএ উইথ মি
ব্যাটা লুচু কোথাকার,,, মেয়েদের ওড়না ধরে টানাটানি করে,, লজ্জা করে না??আজাইরা।।।মেয়ে দেখলেই আর তর সয় না,,,,,
হোয়াট দ্যা হেল …এই অন্ধ মেয়ে ওড়না তো ঠিক করে রাখতে পারোনা.. আবার দোষ চাপাও অন্যের গারে।।।
উনার কথায় উনার হাতের দিকে ভালো করে খেয়াল করে দেখলাম।।তাড়াহুড়ো করে আসতে গিয়ে আনফরচেন্টেলি ঘড়ির বেল্টে ওড়না আটকে গিয়েছে,,এখনো আটকে আছে ঘড়িতে নির্লজ্জ ওড়নাটা কি স্বাচ্ছন্দ্যের সাথেই না আটকে আছে।।।ব্যাপক মেজাজ খারাপ হচ্ছে,,, এই মুহূর্তে ওড়না নামক বস্তুটাকে অসহ্যকর বলে মনে হচ্ছে।।।বিরক্তি বিষয়টি কেমন যেন বেড়েই চলেছে ।।।সব কিছুতেই বিরক্ত আমি আজ,,,তাইতো সামনে থাকা কিউট এন্ড হট ছেলেটাকে আমার কাছে আস্ত বিরক্তির ডিব্বা বলে মনে হচ্ছে।।।
অনয় ভাইয়া,,,,, রাগী দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে,,,,, মনে হচ্ছে চোখ দিয়ে গিলে খাবে,,,আমি ঢোক গিললাম…..বুকে সাহস নিয়ে বলে ফেললাম।।।।.
,
হোয়াটএভার.,,,,ঘড়িটা আপনার হাতে সো দোষটাও অবশ্যই আপনার(ভয়ে ভয়ে)
,
সাউট আপ এস্টুপিড গার্ল ,,,(দাঁত কটমট করে)
,
উনার দিকে মুখ তুলে তাকাতেই চোখ গুলো যেনো আটকে গেলো উনার চোখে মুখে।।ছেলেটা কি সত্যিই এতোটা সুন্দর নাকি আমার কাছেই এতোটা সুন্দর লাগছে ঠিক বুঝতে পারছি না।।তবে এটা ঠিকই বুঝতে পারছি এত্ত গুলো বছরের রেকর্ড ভেঙে আজ আমিও কারো উপর ক্রাশড।।কথাটা ভাবতে ভাবতেই হঠাৎ আমার দিকে এগিয়ে এলেন উনি।।
হাজার সাহস দেখালেও উনাকে এগিয়ে আসতে দেখে পিছিয়ে গেলাম কয়েক পা।দেয়ালের গায়ে লেগে দাঁড়াতেই একহাতে পথ আটকে আমার উপর ঝুঁকে পড়লেন উনি।।এতোক্ষণে বুঝতে পারছি মারাত্মক রকমের ভুল করে ফেলেছি আমি।
ভার্সিটির সিনিয়র ভাই।।।তার উপরে সবার পছেন্দের।। ।এখন যে কি আছে কপালে আমার আল্লাহ এ জানেন।।। উনি আমার দিকে আরো ঝুঁকে এসে বলে উঠলেন-” ফাস্ট ইয়ার তবু এতো তেজ?” আরো কিছু বলতে যাবেন তারআগেই পেছন থেকে একটা ছেলে বলে উঠলো…
.
অনয় প্রিন্সিপাল স্যার এদিকেই আসছেন ….
.
কথাটা কানে যেতেই ঘাড়টা হালকা বাঁকিয়ে  ভ্রু কুচঁকে আমার দিকে তাকিয়ে হাতে রাখা সানগ্লাসটা পড়তে পড়তে একটা ভিলেন এর মতো হাসি দিয়ে বলে উঠলেন…”তোমায় তো আমি পরে দেখে নিবো…জাস্ট ওয়েট এন্ড ওয়াচ”
.
.
সোজা চলে গেলাম ক্লাস এ,,,,,,
 #চলবে,,,,,,,

No comments