Breaking News

রাগী বউ | পর্ব- ০২

আমি রাইসাকে কোলে করে ছাদে নিয়ে গেলাম,,,,,

 রাইসাঃ  এই তুমি আমাকে কোলে নিলে কেন,,,,
আমিঃ  আমার বউকে আমি কোলে নেবো না তো কে নেবে,,,,?
রাইসাঃ  আমি জানি তুমি আমাকে একটুও ভালোবাসো না,,,?
আমিঃ  আমি আমার পিচ্চি বউ টাকে অনেক ভালোবাসি। আমার জীবনের থেকেও বেশি ভালোবাসি,,,,
রাইসাঃ  তাই নাকি,,?
আমিঃ  পিচ্চি বউ একটা কথা বলবো,,,
রাইসাঃ  হ্যাঁ বলো।
আমিঃ  না মানে তোমার হাতটা একটু ধরবো,,,
রাইসাঃ  কে বারণ করেছে,,,☺
 আমি রাইসার হাতটা ধরলাম। কিন্তু আমার মনের ভিতরে সেই একটা অনুভূতি হইল। জানিনা এরকম অনুভূতি আমার আগে কখনো হয়েছে কিনা। আজকের রাইসাকে খুব ভালো লাগছে,,,
আমিঃ  এই তোমাকে একটা পাপ্পি দেই
রাইসাঃ  এর জন্যই ছেলেদের বেশি লাই দিতে নেই
আমিঃ  কেন কি হলো। আমি আবার কি করলাম,,?
রাইসাঃ  হাত ধরতে চাইছো দিছি। এখন আবার বলতেছো তুমি আমাকে পাপ্পি দেবে। হবে না, পাপ্পি দেবো না,,,,?
 রাইসা কথাটা বলার পর আমি মুখটা অদিকে ফিরিয়ে নিলাম। আমি জানি ও আমাকে রাগ ভাঙ্গানোর জন্য পাপ্পি দেবে। তাই আমিও একটু ঢং করলাম। দেখি কি করে ও,,,,,?
রাইসাঃ  আমি দেখলাম ও মুখটা অধিক ফিরিয়ে নিল। আমি বুঝতে পেরেছি ও খুব কষ্ট পেয়েছে। তাই বললাম কি হইছে? কি হইছে তোমার। এই ফিরবা না এদিকে,,,?☹ এইযে এখন কিন্তু আমি কান্না করব। সত্যি বলতেছি। এদিক তাকাও, আচ্ছা বাবা আমি পাপ্পি দেবো, ফেরো এদিককার প্লিজ,,,
আমিঃ  সত্যি দিবা তো,, দেও তাহলে পাপ্পি।।
রাইসাঃ  হ্যাঁ কাছে আসো,,
আমিঃ  এই যে এসেছি দেওয়া এবার
রাইসাঃ  এতটুকু আসতে বলিনি একদম কাছে আসো আমাকে জড়িয়ে ধরো,,
 আমি রাইসা কে জড়িয়ে ধরলাম একদম ওর সাথে আমি মিশে গেলাম তারপরও আমাকে একদম জড়িয়ে ধরলো। তারপর ও আমার ঠোঁট ওর ঠোঁটে ঢুকিয়ে নিল তারপর একদম 10 মিনিট পরে আমাদের ঠোট দুটো আলাদা করলাম,,,,,
 আমি বুঝতে পারছিলাম যে রাইসা সে হাপিয়ে গেছে। তাই ওকে বললাম চলো এবার ঘুমোতে যাই।।
 রাইস আমাকে বললো আচ্ছা যেতে পারি তবে আমাকে এবার কোলে নিতে হবে,,,,
আমিঃ  আচ্ছা কোলে নিবো,,,
 আমি রাইসা কে কোলে করে নিচে নিয়ে আসলাম। তারপর ও আমাকে ধরে ঘুমিয়ে গেলো কিন্তু আমার ঘুম আসছিল না। আমি ওর দিকে তাকিয়ে রইলাম। তারপর কখন জানি ঘুমিয়ে গেলাম সকাল হয়ে গেল,,,,
রাইসাঃ  এই শুনছো,,,,
আমিঃ  হ্যাঁ ডাকছো কেন আর একটু ঘুমাই(ঘুম ঘুম চোখে)
রাইসাঃ  এই না অনেক ঘুমাইছো। এখন ওঠো প্লিজ,,
আমিঃ  আর একটু ঘুমাইতে দাও না জানু প্লিজ,,,
রাইসাঃ  তুমি উঠবা না তাই না,, আচ্ছা আমি চলে যাচ্ছি। ওটা লাগবে না তোমার। অফিসে যাবা না তুমি,?
আমিঃ  হ্যাঁ যাবো তো কয়টা বাজে এর ভিতরে অফিসে যাব,,
রাইসাঃ  9:20 বাজে আর তুমি বলতেছ এত তাড়াতাড়ি। ওঠো বলছি,,
 আমার অফিস দশটায়। তাই টাইম শুনেই আমার হার্ট খুব কাপতে শুরু করলো,, তাই তাড়াতাড়ি উঠে ফ্রেশ হয়ে নিলাম তারপর অফিসের জন্য রেডি হলাম নাস্তা করলাম। তারপর রুমে আসলাম এসে টাই  খুঁজে পাচ্ছিলাম না। তাই রাইসাকে ডাক দিলাম।।
আমিঃ  এই রাইসা শুনতে পাচ্ছ আমার টাই টা কই পাচ্ছি না তো
রাইসাঃ  তুমি কখনো তোমার জিনিস খুঁজে পাও না সব আমাকে সামলাতে হয়
আমিঃ  এই আমি সামলাবো কেন,,? তুমি আছ কি করতে  আছো।তুমি আমার সবকিছু শামলাবা জানোনা। তুমি বিয়ের আগে তো বলতে যে আমি সব কাজ করবো। এখন কি হইছে পারো না তুমি,,,?
রাইসাঃ  কথা না বলে এদিক ফেরো আমি টাইটে পরিয়ে দি
আমাকে টাইটে পরিয়ে দিল তারপর আমি যেতে চাইলাম হঠাৎ করে মনে আসলো যে আজকে একটা জিনিস মিস হয়ে গেছে আমার তাই আবার ফিরে আসলাম ওর কাছে
রাইসাঃ  কি হলো ফিরে আসলো যে কিছু রেখে গেছো নাকি,,,,? আমি বুঝতে পারছিলাম ও কিসের জন্য আবার আসছে ও জানে যে ও আমাকে যদি আজকে কিস না করে তাহলে আমি ওর সাথে আর কথা বলব না রাগ করে থাকব তাই ও আবার আসছে আমি সেটা বুঝতে পারছিলাম,,,??
আমিঃ  আমি রোহিত কে কপাল একটি পাপ্পি দিলাম তারপর বললাম এইটা রেখে গিয়েছিলাম তো এটা যদি আমি না দিয়ে যেতাম তাহলে আমার মনটা খারাপ হয়ে থাকতো সারাদিন তাই দিয়ে গেলাম
 রাইসা আমার দিকে তাকিয়ে খুব হাসছিল এবং বলল আসলে তোমার মত স্বামী পাওয়ার ভাগ্যের ব্যাপার
 অফিসে চলে গেলাম যাওয়ার পরে খুব ওর কথা মনে পড়ল তাই টাইম পেলেই ওর কাছে ফোন করলাম
আমিঃ  হ্যালো পিচ্চি বউ কি করো
রাইসাঃ  যাই করি তোমার জন্য একটা সুখবর আছে,,,
আমিঃ  কি শুনি আগে
রাইসাঃ  হ্যাঁ বলব তবে বাসায় আসো তারপরে রাতে বলবো
আমিঃ  আমি বুঝতে পারছিলাম যে ও একটা গুরুত্বপূর্ণ কিছু বলবে তাই আমি অফিসের থাকলাম না বসের কাছে বলে চলে গেলাম বাসায়
রাইসা দরজা খুললো
 দরজাটা খুলেই ও আমাকে জড়িয়ে ধরল এবং খুব কান্না করলো
আমিঃ  এই কি হয়েছে খুশির খবর সোনা পাতা কাঁদছো কেন বল আমাকে কি হইছে
রাইসাঃ  আজ আমি খুশিতে কান্না করতেছি আজকে আমার সবথেকে খুশীর দিন
আমিঃ  কি হয়েছে বলবা তো বল আমাকে আমার কিন্তু হার্টবিট বেড়ে যাচ্ছে
রাইসাঃ  তুমি বাবা হতে চলেছ আর আমি মা হতে চলেছি বুঝছো পাগল
 রাইসার কথা শুনে আমি কেঁদে দিলাম এবং খুশিতে নাচতে থাকলাম ওকে কোলে নিয়ে আমি খুব লাফালাম
মাঃ কিরে বাবা এখন তুই অফিস থেকে এসে পড়লি। ও বুঝেছি তুই বাবা হবি এই খবর শুনে তাড়াতাড়ি চলে এসেছিস তাই না
আমিঃ  আরে মামা তুমি আসলে কখন
রাইসাঃ  এত সুন্দর একটা খবর শুনে আমি না আসে পারব বল তুই,,
 মা এসেছে এটা দেখে আমার মনটা ভরে গেল তারপর আমরা সবাই খেতে বসলাম
চলবে ……
আগের গল্প গুলো আমাদের ব্লগে আছে।

No comments