Breaking News

কাজের মেয়ে যখন বউ | পর্ব - ২

-কিছু না বললে বলব যে আপনি ঐসব খারাপ ভিডিও দেখেন(মুন্নি)
-এই এই কি ভিডিও দেখছি?(আমি)
-ঐ যে একজন আরেকজনের সাথে কি সব করে?
-কি করে?
-চুমু দিচ্ছে আরো কি সব করছে
-আরে পাগল এটা রোমান্টিক গান
-জানি এগুলো কি
-আশিক বানাইয়া গান শুনোনাই?
-এমন খারাপ গান খারাপ ছেলেরা ছাড়া কেউ শুনেনা।
-আমি খারাপ?
-একটু একটু খারাপ
-কেনো?
-ঐদিন আমাকে এমন ভাবে ধমক দিলেন কেনো?
-আরে ঐদিন ঘুমের ঘোরে ছিলাম তাই
-হুম জানি, আপনি ইচ্ছা করেই আমাকে ধমক দেন।
-ওকে আর ধমক দিবো না
-হি হি ওকে
-আবার হাসার কি হলো?
-কিছুনা
.
-হুম সামনে কলেজ আসছে নামো
-হুম নামতাছি
-আমি কি কলেজ শেষে আসব?
-আসলে ভালো হয়,আমার ঐ ছেলেগুলোরে দেখলে কেমন জানি লাগে
-কেমন লাগে?
-বখাটের মত
-ওকে এখন ক্লাসে গিয়ে ক্লাস করো। -ওকে বাই
-এই শুনেন
-কি?
-সাবধানে যাবেন কিন্তু,আর হ্যা আস্তে আস্তে চালিয়ে যাবেন
-ওকে বাই
-বাই
বাড়িতে এসে শুয়ে থাকলাম, কতক্ষণ পরে…..
-নীল(মা)
-হ্যা মা বলো
-মুন্নির কলেজ ছুটি হয় দুইটা বাজে
-ওকে তাহলে আর কতক্ষন পরে বের হবো
-না এখনি যা
.
-যেভাবে বলো যেনো নিজের কোনো আত্মীয় হয়
-হয় নাই হবে
-মানে?
-কিছুনা এখন ওর কলেজে যা
-ওকে যাচ্ছি
-হুম সাবধানে যাস, তোরা আসলে খেতে বসব
-ওকে মা
ওর কলেজে গিয়ে দেখি ছুটি হয়ে গেছে।ও কোথাই যে গেলো?
কতক্ষণ খোজাখুজির পর কলেজ ক্যাম্পাসে গিয়ে দেখি বারান্দাতে বসে আছে।
ও আমাকে দেখার সাথে বাচ্চা মানুষের মতো নাক ফুলিয়ে মুখ অন্যদিকে নিয়ে গেছে।
– ঐ আসো
-না আমি একলা যেতে পারি এই বইলা হাটা শুরু করছে
-আরে উঠো
-না
-বলছি উঠতে
-আবারো ধমক দিয়ে কথা বলেছেন।
-আমিতো ২.১০ এ আসছি,রাস্তায় জ্যাম ছিলো তাই লেইট হয়ছে
-ওকে
বাইকে করে বাসায় নিয়ে আসলাম
-কিরে মা আজ কেমন লাগছে?(মা)
-হুম মা ভালোই লাগছে, আজকে আর ওরা কেই পিছু নেয়নি।
-হুম এর জন্যই তো নীলরে পাঠালাম
-মাহহহহ আমি এখানে ওর সেক্রেটারি হয়ে গেলাম?(আমি)
-কিভাবে?
.
-ঐ যে ছেলেরা যেনো ডিস্টার্ব না করে তার জন্য আমাকে পাঠায়ছো।
-বেশি বুঝবিনা বলে দিলাম,যা গোসল করে আয়।
রুমে এসে কতক্ষন রেস্ট নিয়ে গোসল করে হেডফোন দিয়ে হাই-বলিউমে গান শুনতাছি।
হঠাৎ একটা আপেলের টুকরা আমার উপরে এসে পরল
তখন মুখ ফিরিয়ে দেখি ও হাসতাছে তখন ঠিক ইড শেরানের পারফেক্ট গানের নায়িকার মতো অনেক কিউট লাগতাছে।
-স্যরি(মুন্নি)
-কেনো(আমি)
-আপনাকে মনে হয় ১০ টার বেশি ডাক দিছি তাও শুনেন নাই তাই ডিল দিছি।
-তাহলে রুমে এসে ডাক দিলানা কেনো?
-আপনি আমাকে বলছেননা যেনো কারো অনুমুতি না নিয়ে রুমে না ডুকতে
-হা হা হা
-হাসেন কেনো?
-তাই বলে আপেলের টুকরা দিয়ে ডিল দিছো?
-হু
-এর জন্য হাসি পাইতাছে
-বেশি হাসলে দাত পরে যাবে
-আচ্ছা হাসবোনা
-হুমম এখন আসেন, মা অপেক্ষা করতাছে।
-ওকে চলো
.
খেয়ে রুমে এসে ওরে নিয়ে ভাবতে লাগলাম।ওর আমরা ছাড়া আর কেউ নাই তাও কিভাবে হাসিমুখে থাকে। আসলেই ও অনেক ভালো,আর নামাজ ও পড়ে।
আমি এতদিন যার অপেক্ষায় ছিলাম এটাই কি সেই মেয়ে।
কি অদ্ভুত আবার থুতুনির নিচে তিলটাও অনেক সুন্দর লাগে।
ওরে আমাদের ঘরে একবারে রেখে দিলে কেমন হয়?
ভালোই হবে, ও তো মেয়ে হিসেবে অনেক ভালো এবং ধার্মিক ও।
এসব ভাবতে ভাবতে কখন যে ঘুমিয়ে গেলাম তা নিজেই জানিনা।
ঘুম থেকে উঠে দেখি বিকাল ৪.৩০ এর মতো বাজে।
উঠে ফ্রেশ হয়ে ওর রুমে ছাদে গেলাম , গিয়ে দেখি ছাদের এক কোনে কান্না করতাছে।
-মুন্নি(আমি)
-চমকে গিয়ে বলল জি হ্যা বলেন(মুন্নি)
-কান্না করো কেনো?
-এমনি
-হাতে এটা কি?
-ছবির ফ্রেম
-দেখি কার ছবি এই বইলা হাতে নিয়ে দেখি ওর মা বাবা আর ওর এক ফ্রেমে তোলা ছবি। এই মা-বাবা গত হয়েছেন তার জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করো যেনো তারা জান্নাতে যেতে পারে।
-হুম করি তো(কান্না করে করে)
-মা-বাবার কথা কি খুব মনে পড়ছে?
-হুম মা বাবারে অনেক মিস করতাছি।
-আচ্ছা এখন রুমে আসো, এই বলে ওরে রুমে নিয়ে আসছি।
কয়েকদিন পর এভাবে চলার পর একদিন বিকালে দেখি ছাদের এক কোনে বসে আছে।
তখন ওর পাশে গিয়ে…….
.
-মুন্নি(আমি)
-হুম বলুন
-একটা কথা বলি?
-হুম বলার জন্যইতো বললাম।
-বলব?
-না বললে এখানে বসে থাকেন আমি যাই কাজ আছে
-কি কাজ?
-অনেক কাজ আছে
-কাজ করা লাগবেনা
-আমি এই বাড়ির কাজের মেয়ে, বাড়ির বউ না যে বিকালে বসে থাকবো
-যদি বলি বউ
-মানে?
-মুন্নি আমি ঘুরিয়ে পেচিয়ে কিছু বলতে পারিনা, ডিরেক্ট বলতাছি “আমি তোমাকে ভালোবাসি”
-করুনা?
-না
-তাহলে?
-সত্যিই এই কয়দিনে খুব ভালবেসে ফেলেছি
-এটা ভালোবাসা না
-তো কি?
.
-এটা সম্পূর্ণ করুনা
-একদম না
-আমি এই বাড়ির কাজের মেয়ে , আমার সাথে কিভাবে আপনায় যায় বলেন?
-আমার তোমাকেই লাগবে, তোমাকে ভালোবাসছি তোমাকেই বিয়ে করবো।
-হা হা হা আমাকে আপনি বিয়ে করবেন?আমি তো কোনো এক রিক্সাওয়ালার বউ হব,বাই আর হ্যা আপনি আর আমার সামনে আসবেননা।
-ওর হাতটা ধরে,মুন্নি প্লিজ আমাকে বুঝার চেস্টা করো
-আপনাকে বুঝার জন্য আশে পাশে আরো অনেক মেয়ে আছে।
-সত্যিই খুব ভালোবাসি।
-হাত ছারেন
-না আগে হ্যা বলো
-হাত ছারেন
-বলছিতো উত্তর দেও
এরপর যা করলো তার জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিলাম না…………
চলবে…..

No comments