Breaking News

কাস্টমার কেয়ার সার্ভিস এর মেয়ের সাথে প্রেম

 

রাত জেগে ব্রাজিলের খেলা দেখার পর সকালের দিকে একটু ঘুমাইছি এমন সময় ফোন আসলো।
ধুরর ভালো লাগে না। দিলো ঘুমটা ভাঙিয়ে। ফোনটা রিসিভ করে ঝাড়ি দিতে যাবো তখনই শুনি মিষ্টি একটা কন্ঠ
ভেসে আসতাছে ফোনের ওপাশ থেকে আমি মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে শুনতাছি । কিছুক্ষন পর বুঝতে পারলাম সিম
কোম্পানি থেকে কল দিছে। এইবার আবার মেজাজটা খারাপ হয়ে গেলো। কিন্তু একটু পরই মাথায় একটা দুষ্ট
বুদ্ধি চাপলো। ভাবলাম কাস্টমার কেয়ার এর মেয়ের সাথেই প্রেম করবো নয়তো আমার নাম বদলে ফেলবো।
তাই কল দিলাম,
– হ্যালো?(আমি)
– জি স্যার বলুন কি করতে পারি?
(ওপাশ থেকে একটা মেয়ে)
– আগে আপনার নামটা বলুন তারপর
অন্যসব।(আমি)
– জি স্যার আমি নিলিমা ,এখন
বলেন আপনার জন্য কি করতে পারি
আমি।(নিলিমা)
– জি আপনাকে আমার গার্লফ্রেন্ড
হতে হবে।(আমি)
– সরি স্যার বুঝলাম না?(নিলিমা)
– মানে আজকে থেকে আপনি আমার
গার্লফ্রেন্ড।(আমি)
– স্যার আপনি মনে হয় অসুস্থ।
আমাদের সিম কোম্পানি থেকে
কোনো সমস্যা হলে বলতে পারেন।
(নিলিমা)
– আমি আপনাকে ভালোবাসি।
(আমি)
– স্যার একটু বুঝার চেষ্টা করুন।
(নিলিমা)
– আমি কোনো কিছু বুঝতে চাইনা।
(আমি)
ফোনটা কেটে গেলো।
হাহাহা মজা লাগতাছে। আমাকে
ডিস্টার্ব করার ফল তোমাকে
পেতেই হবে। আপনারা তো জানেন
ই সিম কোম্পানিতে থাকা
মেয়েদের কন্ঠ কতটা মধুর হয়।
আর এই মেয়েটার ও একি অবস্তা।
আমি টাইমপাস করার জন্য কল দিয়া
প্রেমে পড়ে গেছি।
কিচ্ছু করার নাই। এখন কাস্টমার
কেয়ার এর মেয়ের সাথেই প্রেম
করবো।
,
সারাদিন আর কল দেই নাই। রাত
আটটার দিকে কল দিলাম,
– নিলিমা বলছেন??(আমি)
– হুমম কিন্তু আমার নাম জানলেন
কিভাবে?(নিলিমা)
– আমাকে ভুলে গেছেন?(আমি)
– সরি স্যার আমি আপনাকে চিনতে
পারছি না।(নিলিমা)
– আমি সকালের সেই ছেলেটা।
(আমি)
– ওহ আপনি স্যার আপনার কি
কোনো সমস্যা হইছে।(নিলিমা)
– জি হইছে।(আমি)
– কি সমস্যা বলুন আমি সমাধান
করার চেষ্টা করবো।(নিলিমা)
– আমি খেতে পারিনা ঘুমাতে
পারিনা সবসময় কোনো কিচ্ছু করতে
পারিনা।(আমি)
– তাহলে স্যার আপনি ডাক্তার এর
কাছে যান। আমরা তো সিম এ
প্রবলেম হলে সলভ করি মানুষের
সমস্যা না।(নিলিমা)
– আরে শুনবেন তো আগে পুরো
কথাটা?(আমি)
– না স্যার আমার সময় নাই আমাকে
কাজ করতে হবে।(নিলিমা)
– আমি সবসময় শুধু আপনার কন্ঠই শুনতে
পাই।(আমি)
একটু হাওয়া দিলাম।
শুনছিলাম মেয়েদের প্রসংসা
করলে তারা খুশি হয়।
তাই আরকি আমিও একটু ট্রাই করলাম।
– স্যার সিম সংক্রান্ত কোনো
সমস্যা হলে বলতে পারেন?
(নিলিমা)
– না ওইরকম কোনো সমস্যা নাই। আর
আমাকে স্যার বলবেন না আমার
নাম সানভি।(আমি)
– সরি স্যার আমি এখানে কাজ করি
তাই আমাকে স্যার বলেই ডাকতে
হবে নইলে সমস্যা হবে।(নিলিমা)
– ওকে।(আমি)
ফোনটা আবারো কেটে গেলো।
যাই হোক ভালো লাগতাছে
মেয়েটাকে।
কেমন করে যেনো কথা বলে ছোট্ট
করে।
খুশি মনে ঘুমিয়ে গেলাম।
পরের দিন আর সারাদিনে কল দেই
নাই,
রাতে খাওয়া দাওয়ার পর কল
দিলাম।
কিন্তু এবার নিলিমার যায়গায়
একটা ছেলে কল ধরলো,
– হ্যালো স্যার আমরা কি করতে
পারি আপনার জন্য?(ছেলেটা)
– আপাতত নিলিমাকে ডেকে
দিলেই হবে।(আমি)
– দুঃখিত স্যার আপনার যা বলার
আমাকেই বলুন।(ছেলেটা)
– আমি আমার সমস্যাটা উনাকে
বলছি আর উনি হেল্প করবে বলছে
তাই উনাকে ডেকে দিন।(আমি)
– আচ্ছা স্যার।(ছেলেটা)
প্রায় মিনিট খানেক পর নিলিমা
বললো,
– কি ব্যাপার আবার কল দিছেন
কেনো?(নিলিমা)
– সমস্যা হইছে?(আমি)
– কি সমস্যা??(নিলিমা)
– আমার ঘুম আসতাছে না আপনি
একটা গান শোনাবেন।(আমি)
– সরি স্যার আমি এখানে সমস্যার
সমাধান কি গান শোনাই না?
(নিলিমা)
– তাহলে আপনার পার্সোনাল
নাম্বারটা দেন?(আমি)
– দুঃখিত দিতে পারতাছি না।
(নিলিমা)
– তাহলে সবসময় আপনি ফোন ধরবেন
কেমন?(আমি)
– আচ্ছা।(নিলিমা)
.
ফোনটা আবারো কেটে দিলো।
অনেক কথা বলছি আবার
কালকে বলবোনি সমস্যা নাই।
.
আচ্ছা আমি পরিচয়টা দেই,
আমি সানভি আহমেদ সাকিব।
বাসা জামালপুর।
আর বেশি কিছু বলার দরকার নাই,
সারাদিন ঘুরাঘুরির পর
রাত্রিবেলা কল দিলাম,
– হ্যালো?(আমি)
– স্যার একটা কথা বলবো?(নিলিমা)
– হুম বলেন আপনি তো কোনো কিছু
জিজ্ঞেস ই করেন না।(আমি)
– স্যার প্রতিদিন কল দিয়ে আপনি
কি লাভ পান শুধু শুধু টাকা নষ্ট?
(নিলিমা)
– আরে এতো তো আপনাদেরই লাভ।
যত কথা বলবো ততো টাকা।(আমি)
– হুমম কিন্তু আমাকেই কেনো? অন্য
কারো সাথেও তো কথা বলতে
পারেন।(নিলিমা)
– কারন আমিযে আপনার মিষ্টি
কন্ঠের প্রেমে পড়ে গেছি?(আসি)
– হইছে আর বলা লাগবো না।
(নিলিমা)
তারপর আরো কিছুক্ষন কথা বলার পর ফোনটা কেটে দিলো।
.
চলবে,???

No comments